শিরোনাম
সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তর অফিসের অনিয়মে নাজেহাল সাধারণ নাগরিকরা, সচেতন নাগরিক ফোরামের মানববন্ধন নবীগঞ্জ থানার ইনাতগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা আটক ৮ সিলেটে ৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ডিজিটাল সুরক্ষা-নিরাপত্তা শীর্ষক কর্মশালা ও ইফতার অসুস্থ আলহাজ্ব সৈয়দ মকবুল হোসেন মাখন মিয়ার শয্যাপাশে সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি’র নেতৃবৃন্দ লাইফ সাইন্স মেডিকেল টেকনোলজি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এর উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত হয়েছে কক্সবাজারে সামরাই খাল উদ্ধারে পরিবেশবাদী সংগঠনের মানববন্ধন ও বিশ্ব পানি দিবস পালিত চৈত্রের বৃষ্টি, আমের জন্য আশীর্বাদ না অভিশাপ ভারতীয় চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী রানী মুখার্জীর শুভ জন্মদিন আজ মা’গো———- ওও —————মা’গো নবীগঞ্জে বাগাউড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ জসিম উদ্দিন (সেলিম) এর দুর্নীতি অনিয়মের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের নির্দেশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫১ অপরাহ্ন

সিসিকের নোটিশের ৩বছর পেরিয়ে গেলেও ভাঙ্গা হয়নি ঝুঁকিপূর্ণ আল-খাজা মার্কেট

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৬ আগস্ট, ২০২৩
আল-খাজা মার্কেট

বিজ্ঞাপন

সিলেট নগরীর কাষ্টঘর এলাকায় অবস্থিত আল-খাজা মার্কেট নিয়ে নানা গুঞ্জন। বার বার ভাঙ্গার কথা বলা হলেও অদৃশ্য কারণে তা ভাঙ্গা হচ্ছে না। এই নিয়ে জনমনে দেখা দিয়েছে নানান জল্পনা।

গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর সিসিক কর্তৃক এই অভিযান চালানা হয়। এসময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মতিউর রহমান মার্কেট কর্তৃপক্ষকে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ১৫ দিনের সময় বেধে দেন বর্ধিত অংশ ভাঙ্গার জন্য।

এসময় তিনি জানান, ১৯৫২ সালের বিল্ডিং নির্মাণ আইন অমান্য করে তারা বিল্ডিং নির্মাণ করেছে আল-খাজা মার্কেট কর্তৃপক্ষ। মার্কেটের ডান দিক এবং বাম দিক থেকে ৪ ফুট করে জায়গা ছাড়ার কথা থাকলেও তারা তা মানেন নি।

২০১৯ সাল থেকে সিলেট সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক বিভিন্ন মেয়াদে তাদের নোটিশ প্রদান করলেও তারা কোন উদ্যোগ নেয়নি। ২০১৯ সালে সিটি কর্পোরেশন থেকে অভিযানের সময় ম্যাজিস্ট্রেট বলেছিলেন, সকল ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে আমরা আপাতত কর্তৃপক্ষকে ২ লাখ টাকা জরিমানা এবং ১৫ দিনের সময় বেধে দিচ্ছি।

নির্ধারিত সময়ে মধ্যে কর্তৃপক্ষ মার্কেটের বর্ধিত অংশ ভেঙ্গে আমাদেরকে অবহিত করার জন্যও জানানো হয়েছে। সেই সময় ম্যাজিস্ট্রেটের দেওয়া ১৫ দিন সময় পেরিয়ে দীর্ঘ চার বছর অতিবাহিত হচ্ছে। কিন্তু আজও এই অবৈধ বিল্ডিংটি ভাঙ্গা হয়নি।

স্থানীয়রা জানান কয়েকদিন পূর্বে আবারও এই মার্কেটে অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। বার বার বিল্ডিংটি ভাঙ্গার নোটিশ দেয় সিলেট সিটি কর্পোরেশন। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোন গুরুত্ব দেয় না।

অন্যদিকে সিটি কর্পোরেশনও শুধু নোটিশ দিয়েই দায় সেড়ে নিচ্ছে। সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ স্থাপনা নিজে দাঁড়িয়ে ভাঙ্গেন। কিন্তু এই বিল্ডিংটি কেন ভাঙ্গা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন ব্যবসায়ীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ